আপনি জানলে অবাক হবেন-বাদুড় চোখে দেখতে পায় না

12 total views, 2 views today

চোখ এমন একটা অঙ্গ যেটা দিয়ে সকল প্রানী দেখতে পায়। কিন্তু, আপনি জানলে অবাক হবেন- বাদুড় চোখে দেখতে পায় না। তাহলে প্রশ্ন আসে বাদুড় কিভাবে পথ চলে বা খাদ্য সংগ্রহ করে থাকে?

 

পথচলা বা খাদ্য সংগ্রহ করার জন্য বাদুড় যে জিনিসটার ব্যবহার করে সেটা হচ্চে শব্দোত্তর তরঙ্গ । শব্দোত্তর তরঙ্গের সাহায্যে বাদুড় পথে কোনো প্রতিবন্ধকের উপস্থিতি বা খাদ্যবস্তুর অবস্থান জানতে পারে । আগে বলে নেই শব্দোত্তর তরঙ্গ (Ultrasonic) হচ্ছে সে তরঙ্গ যার কম্পাঙ্ক ২০,০০০ Hz এর চেয়ে বেশি ।

বাদুর চলার সময় ক্রমাগত বিভিন্ন কম্পাংকের শব্দোত্তর তরঙ্গ সৃষ্টি করে। এ তরঙ্গ চারদিকে ছড়িয়ে পড়ে। সামনে যদি কোনো প্রতিবন্ধক থাকে, তাহলে তাতে বাধা পেয়ে তরঙ্গ প্রতিফলিত হয়ে বাদুড়ের কানে ফিরে আসে। বাদুড় তার সৃষ্ট শব্দোত্তর তরঙ্গ এবং প্রতিধ্বনি শোনার মধ্যকার সময়ের ব্যবধান ও প্রতিফলিত শব্দের প্রকৃতি থেকে প্রতিবন্ধকের অবস্থান এবং আকৃতি সম্পর্কে ধারণা লাভ করে এবং পথ চলার সময় সেই প্রতিবন্ধক পরিহার করে। যে দিকে শব্দোত্তর তরঙ্গের প্রতিধ্বনি শুনতে পারে না, সে দিকে কোনো প্রতিবন্ধক নেই বিবেচনা করে বাদুড় সে দিকে চলে।

 

অনেক সময় বৈদ্যুতিক লাইনে মৃত বাদুড় ঝুলে থাকতে দেখা যায়। বৈদ্যুতিক লাইনের তারগুলো সরু  এবং সমান্তরাল হওয়ায় এদের অবস্থান এবং মধ্যবর্তী দূরত্ব সম্পর্কে তাৎক্ষনিক ভাবে সুস্পষ্ট ধারণা লাভ করা যায় না। ফলে চলার পথে অনেক সময় একসাথে বৈদ্যুতিক লাইনেরর ধনাত্মক ও ঋনাত্মক তার স্পর্শ করে ফেলে,  এতে বৈদ্যুতিক বর্তনী পূর্ণ হয় এবং বিদ্যুৎ প্রবাহের ফলে বাদুড় মারা যায়।

 

প্রকৃতিতে একধরনের মাকড়শা আছে, যেগুলো শব্দোত্তর তরঙ্গ ব্যবহার করে শিকার করে থাকে। এই মাকড়শা ৪৫,০০০ Hz কম্পাঙ্ক পর্যন্ত শব্দোত্তর তরঙ্গ ব্যবহার করতে পারে।

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *