আমাশয় সহ নানা রোগ নিরাময়ে তরমুজের ব্যবহার

ফল হিসেবে আমরা সবাইতো তরমুজকে চিনি । কিন্তু তরমুজ যে রোগ ব্যধি ব্যবহার হয় তা কয়জনের জানা আছে । হ্যাঁ, বন্ধুরা আজকে আমরা জানবো রোগ ব্যাধিতে তরমুজের ব্যবহারঃ

  • তরমুজ রস মিষ্টি ,শীতগুণ সম্পন্ন শক্তিদায়ক।তরমুজ শরীর ঠান্ডা রাখে। অশান্তি দূর করে।
  • শাস খেলে লিভারের উপকার হয়।পিলে কমায়।পেট পরিস্কার রাখে,হজম শক্তি বাড়ায়। পেটের অসুখ এবং আমাশায়ে তরমুজ বেশি উপকারী।
  • আমাশার রোগী আদা জিরে ভাজা গুড়ো গোলমরিচ এবং লবন মিশিয়ে তরমুজ খেলে উপকার পাবেন।
  • তরমুজ শরবত শরীর ঠান্ডা ও তাজা রাখে। নিয়মত মধু মিশিয়ে তরমুজ খাওয়া ভালো।তরমুজ রস খেলে শরীর লাবন্য বজায় থাকে ,দীর্গদিন বেশ চনমনে থাকা যায়।
  • অর্শরোগীদের পক্ষে তরমুজ খাওয়া ভালো।তরমুজ রস খেলে প্রস্রাব পরিস্কার হয়।
  • পাকা তরমুজ এক কাপ রসে একটু জিরে গুড়ো ও একটু চিনি মিশিয়ে খেলে হৃদরোগীরা উপকার পাবেন।টায়ফয়েড জ্বরে আধাপাকা বা কাঁচা তরমুজের রস দু-চামচ করে দিনে তিন-চার বার করে দু-দিন খাওয়ালেই বেশ উপকার পাওয়া যায়।
  • দীর্ঘদিন অপুষ্ঠিতে ভুগতে থাকলে তরমুজের শাসের শরবত বেশ উপকারি। কাঁচা তরমুজ শাঁস কুচিয়ে শুকিয়ে নিতে হবে তারপর শুকনো শাঁস গুড়ো করতে হবে।এক কাপ দুধে এক চামচ গুড় গুলে নিয়ে সকাল-বিকাল খেলে দশ-বারো দিনেই ফল পাওয়া যায়।

            



 

 

                                তরমুজে প্রতি ১০০ গ্রামে আছে

জলীয় অংশ ৯৫.৮ ক্যলসিয়াম ১১ মিঃ
মোট খনিজ ০.৩ লৌহ ৭.৯ মিঃ
আঁশ ০.২ ক্যারোটিন(আইক্রোগ্রাম)
খাদ্যশক্তি(কিলোক্যলরি) ১৬ ভিটামিন বি-১
আমিষ ০.২ ভিটামিন ০.০৪
চর্বি ০.২ ভিটামিন-‘সি’ ১ মিঃ
শর্করা ৩.৩

Comments

comments

Related posts

3 Thoughts to “আমাশয় সহ নানা রোগ নিরাময়ে তরমুজের ব্যবহার”

  1. Ozi Muhammad Biplopb, thank you for your blog post.Really thank you! Awesome.

  2. lubnabutt

    Thanks Jennifer. I am much better!

  3. Cornel

    Thank you so much, dear Jean:)

Leave a Comment