টেলিভিশন যেভাবে কাজ করে

টেলিভিশন হল এমন একটি যন্ত্র যার সাহায্যে আমরা দূরবর্তী কোনো স্থান থেকে শব্দ শোনার সঙ্গে বক্তার ছবি টেলিভিশন পর্দায় দেখতে পাই। স্কটিশ আবিষ্কারক লজি ১৯২৬ সালে টেলিভিশনে চিত্র প্রেরণে সক্ষম হন। সেদিনকার টিভি শিল্পী ছিল একটি কথা বলা পুতুল।

 

টেলিভিশন কিভাবে কাজ করে

আমরা জানি টেলিভিশনে ছবি দেখার সাথে সাথে শব্দও শোনা যায়। টেলিভিশনে ছবি ও শব্দ প্রেরণের জন্য প্রয়োজন একটি প্রেরক স্টেশন। প্রেরক স্টেশনে থাকে প্রেরক যন্ত্র, যার সাহায্যে তাড়িতচৌম্বক তরঙ্গরূপে শব্দ ও ছবি প্রেরণ করা হয়। শব্দ ও ছবি প্রেরণের জন্য টেলিভিশন প্রেরক স্টেশনে পৃথক প্রেরক যন্ত্র থাকে।

 

একটি প্রেরক যন্ত্রের সাহায্যে শব্দকে তাড়িরচৌম্বক তরঙ্গে রূপান্তরিত করে প্রেরণ করা হয় আর অন্য একটি যন্ত্রের সাহায্যে ছবিকে তাড়িত-সংকেতে রূপান্তরিত করে তাড়িটচৌম্বক তরঙ্গ হিসেবে প্রেরণ করা হয়। যে ছবি বা দৃশ্য প্রেরণ বা সম্প্রচার করতে হবে তার প্রতিবিম্ব বা ছবি লেন্সের মধ্য দিয়ে টেলিভিশন ক্যামেরার পর্দায় ফেলা হয়।  এই ছবিকে টেলিভিশন ক্যামেরা তড়িতে রূপান্তরিত করে।

 

এরপর তড়িৎকে রেডিও কম্পাঙ্ক পাওয়ার-এ রূপান্তরিত করা হয় এবং একে তাড়িটচৌম্বক বেতার তরঙ্গ হিসেবে প্রেরণ করা হয়। এই বেতার তরঙ্গ আমাদের বাড়ির ছাদে রাখা অ্যানটেনা বা ইনডোর অ্যানটেনাইয় সামান্য তড়িৎপ্রবাহ সৃষ্টি করে এই প্রবাহ অ্যারিয়েল দিয়ে আমাদের টিভি সেটে যায়, বিবর্ধিত হয় এবং ছবিতে রূপান্তরিত হয়। যে দৃশ্য প্রেরণ করতে হবে টেলিভিশন ক্যামেরার পর্দায় তার একটি ছবি ফেলা হয়।

Comments

comments

Related posts

Leave a Comment