রোগ-ব্যধিতে খেজুরের ব্যবহার

১.পেটের অসুখে ভুগতে থাকলে মিষ্টির বদলে খেজুর খাওয়া ভালো।তাতে শরীরের ক্ষয় পূরুন হয়।

২.ডায়বেটিস রোগীর খেজুরের সিরাপ খেলে উপকার পাবেন।এক গ্লাস পানিতে দুটো খেজুর সারারাত ভিজিয়ে রেখে সকালে খেজুরসহ সেই পানি খেতে হবে।তাবের রোগীরাও এ পানি  খেলে উপকার পাবেন।

৩.দীর্ঘদিন রোগভাগে শরীর দুর্বল হয়ে পড়লে বা দূর্বল বাচ্ছাদের খেজুরের সিরেয়াপ খাওয়ালে শরীরে বল পাওয়া যায়। এক গ্লাস পরিস্কার পানি দু-তিনটে খেজুর ভিজিয়ে রেখে পরে চটকে নিলেই খেজুরের সিরাপ খেতে হবে।মদ খেয়ে কেউ মাতলামি করলে খেজুরের সিরাপ খাওয়ালেই নেশা কমে যায়।

প্রতিদিন খাব,অল্প খাবঃ যে কেও প্রতিদিন দু-চারটে করে খেজুরের সিরাপ খেতে পারেন।তবে এক সজ্ঞে বেশি পরিমাণ না খাওয়াই ভালো,সকালে বা বিকেলের টিফিনে খেজুর খাওয়া যায়।কোষ্ঠকাঠিন্য থাকলে রাতে খাবারের প্র দু’খনা খেজুর খেলে পেট পরিস্কার হয় ।

 

খেজুরে প্রতি ১০০ গ্রামে আছে:

 

জলীয় অংশ ৫৯.২ ক্যালসিয়াম ২২ মিঃ
মোট খনিজ ১.৭ লৌহ
আঁশ ৩.৭ ক্যারোটিন(মাইক্রোগ্রাম)
খাদ্যশক্তি(কিলোক্যালরি) ১৪৪ ভিটামিন বি-১
আমিশ ১.২ ভিটামিন
চর্বি ০.৪ ভিটামিন-‘সি’
শর্করা ৩৩.৮    

Comments

comments

Related posts

Leave a Comment